<<< বিজ্ঞপ্তি >>>
@ দৈনিক তিস্তা সংবাদে আপনাকে স্বাগতম। এখন থেকে অনলইনে নিয়মিত ভিজিট করে আমাদের সঙ্গে থাকুন <<< www.dailyteestasangbad.com / fb:teestasangbad >>>॥ ইমেইল: news.teestasangbad@gmail.com
শিরোনাম ॥
শীতের তীব্রতা বেড়েছে পঞ্চগড়ে কর্মসৃজন প্রকল্পের শ্রমিক দিয়ে আশ্রয়ণে কাজ করানোর অভিযোগ কৃষকরাই বাংলাদেশকে বাঁচিয়ে রাখে’ বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য্য নিয়ে বিভ্রান্তোমূলক ফতোয়া ছড়ানোর প্রতিবাদে রংপুরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের মানববন্ধন পুলিশী হামলার ১১ দিনেও বিচার না পাওয়ায় রাজপথে রংপুরের সাংবাদিক সমাজ গঙ্গাচড়ায় কৃষক লীগকে গতিশীল করার লক্ষ্যে সভা ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতিবন্ধি উন্নয়ন ফোরামের মানববন্ধন বাংলাদেশকে উন্নতির শিখরে নিয়ে যেতে কারিগরি শিক্ষার বিকল্প নেই ওভার কনফিডেন্টের কারণে করোনা বাড়ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী যমুনার ওপর বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী
৬ মাসের মধ্যে পুনরায় সংক্রমণের ঝুঁকি নেই: অক্সফোর্ড

৬ মাসের মধ্যে পুনরায় সংক্রমণের ঝুঁকি নেই: অক্সফোর্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক॥
করোনাভাইরাসে পুনরায় সংক্রমণ নিয়ে আশার কথা জানালেন অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির গবেষকরা। বিভিন্ন দেশে সংক্রমণ সেরে উঠতেই নতুন করে ভাইরাসের কবলে পড়া নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছিল তখন অক্সফোর্ডের গবেষকরা জানালেন, করোনায় আক্রান্ত রোগী সুস্থ হওয়ার পর ছয় মাসের মধ্যে পুনরায় সংক্রমণের ঝুঁকি নেই। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসি এখবর জানিয়েছে। করোনার পুনরায় সংক্রমণ নিয়ে এক গবেষণা পরিচালনা করছিল অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি। বিভিন্ন হাসপাতাল ও নার্সিংহোমে ভর্তি হওয়া করোনা রোগীদের পর্যবেক্ষণে গবেষকরা দেখেছেন, পুনরায় সংক্রমণ কীভাবে হানা দিচ্ছে শরীরে। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পরে গবেষকরা বলেছেন, শুরুতে যতটা উদ্বেগ ছিল, এখন তা কমেছে। দেখা গেছে, করোনা সারিয়ে ওঠার অন্তত ৬ মাস অবধি ভাইরাস শরীরে ঢুকতে পারবে না।
অক্সফোর্ডের নিউফিল্ড ডিপার্টমেন্ট অব পাবলিক হেলথের গবেষক ডেভিড আইরের মতে, পুনরায় সংক্রমণের ঝুঁকি কমছে মানেই কোভিড প্রতিরোধী অ্যান্টিবডি টিকে থাকার সময় বাড়ছে। এটিই এই গবেষণার সবচেয়ে ভালো দিক। তার মতে, সংক্রমণ সারিয়ে ওঠার পরে যদি ৬ মাস অ্যান্টিবডি রক্তে থেকে যায় তাহলেই ভাইরাল স্ট্রেন আর নতুন করে রোগ ছড়াতে পারবে না।
১১ হাজার ৫২ জন রোগীর উপরে পরীক্ষা করেই এই সিদ্ধান্তে এসেছেন বিজ্ঞানীরা। সায়েন্স জার্নালে এই গবেষণার কথা প্রকাশিত হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১১ হাজার রোগীর মধ্যে ৮৯ জন যাদের রক্তে অ্যান্টিবডি ছিল না তারা ফের আক্রান্ত হয়েছেন এবং সংক্রমণের উপসর্গও রয়েছে। অন্যদিকে, ১ হাজার ২৪৬ জন রোগীর ক্ষেত্রে দেখা গেছে, এদের রক্তে করোনার অ্যান্টিবডি ছিল, তার পরেও সংক্রমণ হয়েছে এবং রোগীরা উপসর্গহীন। বাকি রোগীদের বেশিরভাগেরই রক্তে পর্যাপ্ত অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে এবং তাদের ক্ষেত্রে পুনরায় সংক্রমণের আশঙ্কা নেই।
গবেষকরা বলছেন, ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করতে গিয়ে মানব শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ধীরে ধীরে বাড়ছে। তাই অ্যান্টিবডির স্থায়িত্বও বাড়ছে। অন্তত পাঁচ থেকে সাত মাস টিকে থাকছে অ্যান্টিবডি। যদি রোগীর শরীরে কোনও ক্রনিক রোগ বা জটিল সংক্রমণজনিত রোগ না থাকে তাহলে এই অ্যান্টিবডির স্থায়িত্ব আরও বাড়বে বলেই দাবি গবেষকদের।

এই সংবাদ ভালো লাগলে শেয়ার করুন।।

চায়না শিশুদের করুণ দোয়া

আজকের বাংলা তারিখ

  • আজ সোমবার, ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ ইং
  • ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল)
  • ১৪ই রবিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী

ইংরেজি বর্ষ-২০২০

কোরআন-হাদিসের বাণী

সত্য লোকের নিকট অপ্রিয় হলেও তা প্রচার কর -আল হাদিস

॥ সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ - ২০২০
Desing & Developed BY NewsSKy